360 x 130 ad code [Sitewide - Site Header]

নৌমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করায় নিজ দলের কর্মীকে হল থেকে বের করে দিল ছাত্রলীগ

Share via email


নৌ পরিবহণ মন্ত্রী শাহজাহান খান কে আইয়ুব খান ইয়াহিয়া খানদের সাথে তুলনা করে ও গালমন্দ করে ফেসবুকে লেখার জের ধরে নিজ দলের কর্মীকে মধ্যরাতে হল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে শাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে।

ভুক্তভুগী শিক্ষার্থী জাবেদ হোসেন ইংরেজি বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণীতে অধ্যয়নরত। তিনি শাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের গ্রন্থনা ও প্রকাশনা উপ সম্পাদক বলে জানা যায়। তিনি শাহপরান হলের ডি ব্লকের ৩৩৮ নাম্বার কক্ষে বসবাস করে আসছিলেন। জাবেদ বলেন, “আমি শাহজাহান খানকে নিয়ে কিছু লিখেছিলাম ফেইসবুকে। ছাত্রদের উপর ইচ্ছাকৃত ট্রাক উঠিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে।
এইটা নিয়ে সভাপতি সাধারন সম্পাদক আমার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরন করেছে। এবং আমাকে তারা হুমকি দিয়ে বের করে দিয়েছে তাদের গ্রুপ নিয়ে। কিন্তু কথা হচ্ছে আমি তো এই সংগঠনের গ্রন্থনা ও প্রকাশনা উপ- সম্পাদক। কোন সাধারন কর্মী ও নই আমি। নৈতিকভাবে তারা এইটা করতে পারে না। তারা যেটা করেছে সেটা এক প্রকার সন্ত্রাসমূলক স্বৈরাচারী আচরণ। তাছাড়া কে দলকে ভালোবাসে কে বাসে না এইটার সার্টিফিকেট দেওয়ার অধিকার তারা রাখে না। যেহেতু তারা নিজেরাই মেয়াদউত্তীর্ণ এবং বিতর্কিত।”

জাবেদের সেই ফেসবুক পোস্ট

হলে ভর্তি আছেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, “২০১৭ তে ভর্তি ছিলাম। এবার হইনি। ভর্তি তো তারা নিজেরাও না।”

এ ব্যাপারে কথা বলতে শাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন ও সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে দুজনের ফোনই বন্ধ পাওয়া যায়।

Share via email

ক্যাটাগরি অনুযায়ী সংবাদ

এই সংবাদটি ২ আগস্ট ২০১৮ইং, বৃহস্পতিবার ১৯টা ২০মিনিটে ছাত্রলীগ, রাজনীতি, সর্বশেষ ক্যাটাগরিতে প্রকাশিত হয়। এই সংবাদের মন্তব্যগুলি স্বয়ঙ্ক্রিয় ভাবে পেতে সাবস্ক্রাইব(RSS) করুন। আপনি নিজে মন্তব্য করতে চাইলে নিচের বক্সে লিখে প্রকাশ করুন।

Leave a Reply

300 x 250 ad code innerpage

Recent Entries

120 x 200 [Sitewide - Site Festoon]
প্রধান সম্পাদক: সৈয়দ মুক্তাদির আল সিয়াম, বার্তা সম্পাদক: আকিব হাসান মুন

প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার প্রধান সম্পাদকের। Copyright © 2013-2017, SUSTnews24.com | Hosting sponsored by KDevs.com