360 x 130 ad code [Sitewide - Site Header]

ক্রিকেটে বিজয়ী পরিসংখ্যান বিভাগ

Share via email

inter-department-cricket-championship-sn24-banner-20170112আফজল:

শাবিপ্রবি আন্তঃবিভাগ ক্রিকেট প্রতিযোগিতা ২০১৬ এর বিজয়ী হয়েছে পরিসংখ্যান বিভাগ, ও রানার আপ হয়েছে রসায়ন বিভাগ।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আন্তঃ বিভাগীয় ক্রিকেট প্রতিযোগিতা ২০১৭ এর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয় ফেব্রুয়ারী ২ তারিখ বৃহঃস্পতিবার দুপুর ১টায়। ২৬ টি বিভাগের অংশগ্রহনে সফলভাবে অনুষ্ঠিত হয় এই প্রতিযোগিতাটি।

বাকি ২৪ দলকে পিছনে ফেলে ফাইনালে উঠে পরিসংখ্যান ও রসায়ন বিভাগ। সবাইকে চমক দিয়ে এবার আন্তঃবিভাগ ক্রিকেট প্রতিযোগিতার বিজয়ী শিরোপা নিজেদের করে নেয় পরিসংখ্যান বিভাগ।

statistics sta

চূড়ান্ত পর্যায়ের ম্যাচে রসায়ন বিভাগ প্রথমে ব্যাট করতে নেমে সব উইকেট হারিয়ে ১৭ ওভার ৪ বলে খেলে ১১৩ রান সংগ্রহ করে তারা। এত কম রানে অল আউট করার পেছনে পরিসংখ্যান বিভাগের বোলার এবং ফিল্ডারদের ভূমিকা ছিলো চোখে পড়ার মত! ১১৩ রানের জবাবে খেলতে নেমে ৩ উইকেট হারিয়ে জয় বন্দরে পৌছে যায় পরিসংখ্যান বিভাগ। ফলে ৭ উইকেটে বিশাল জয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় পরিসংখ্যান বিভাগ।

চূড়ান্ত পর্যায়ের খেলার মূল আকর্ষণ ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট। বিশেষ অতিথি হিসেবে মাঠে বসে ফাইনাল খেলাটি উপভোগ করেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের এই সাবেক অধিনায়ক।

খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিতি ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মাননীয় উপাচার্য আমিনুল হক ভূইয়া। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় প্রক্টর অধ্যাপক ডক্টর মুনশী নাসের ইবনে আফজাল, এবং বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ক্যাপ্টেন খালেদ মাসুদ পাইলট। এতে সভাপতিত্ব করেন খেলাধুলা উপকমিটির সভাপতি, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনার পরিচালক অধ্যাপক রাশেদ তালুকদার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন শারীরিক শিক্ষা দপ্তরের সহকারী পরিচালক শহীদুল ইসলাম জুয়েল।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন শারীরিক শিক্ষা দপ্তরের পরিচালক সউদ বিন আম্বিয়া। সউদ বিন আম্বিয়া তাঁর স্বাগত বক্তব্যে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী প্রতিটি বিভাগের খেলোয়াড় এবং ম্যানেজার সবাইকে ধন্যবাদ জানান সফলভাবে এই প্রতিযোগিতা সম্পন্ন করতে সাহায্য করার জন্য। বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ জানান ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধানকেও। এছাড়াও, প্রতিযোগিতা চলাকালীন কিছু আপদকালীন সময়ে সমস্যা নিরসনে সাহায্য করার জন্য প্রক্টরীয় পরিষদ সহ সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় উপাচার্য আমিনুল হক ভুইয়া বলেন, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় অনেক কিছুতে প্রথম; বিজ্ঞানে প্রথম, লেখাপড়ায় প্রথম।” বিজ্ঞান ও লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলাতেও শাবিপ্রবি প্রথম হবে এই আশা ব্যক্ত করেন। এছাড়া তিনি বলেন, ‘জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেট আয়োজনে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সব সময় অগ্রসর।’ প্রতিবারের ন্যায় এবারও সফল ও সুন্দর ভাবে প্রতিযোগিতা আয়োজনের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। ছাত্রদের পাশাপাশি ছাত্রীদেরকে ক্রিকেট খেলায় উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে আগামী মার্চে একটি প্রমীলা ক্রিকেট প্রীতি ম্যাচ আয়োজন করার জন্য বলেন, এতে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

sustnews24_apply_banner

সভাপতির বক্তব্যে খেলাধুলা উপ-কমিটির সভাপতি অধ্যাপক রাশেদ তালুকদার বলেন, মারামারির কারণে কোন ধরনের কার্যক্রম বন্ধ থাকুক সেটা আমরা চাই না। ক্লাস বা খেলাধুলা মারামারির কারণে বন্ধ থাকুক সেটা কখন আশা করি না। তিনি শারীরিক শিক্ষা দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দের কাজের ভূয়সী প্রসংশা করেন। উল্লেখ্য, বিগত বিবিএ বনাম আইপিই এর মধ্যেকার কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচটির শেষাংশে দুই বিভাগের শিক্ষার্থীদের মাঝে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে, এবং এর রেশ ধরে বিষয়টি রাজনৈতিক দিকে মোড় নিলে ছাত্রলীগের দুই উপদলের মারামারিতে ৮জন শিক্ষার্থী আহত হন। এছাড়াও, পূর্বের পুর কৌশল বনাম বিবিএ ম্যাচটিতে প্রাক্তন শিক্ষার্থীর খেলাকে ইস্যু করে পুর প্রকৌশল বিভাগ আপত্তি তুললে প্রতিযোগিতাটি প্রায় এক সপ্তাহের জন্য স্থগিত হয়ে পড়ে। পরবর্তীতে খেলাধূলা উপকমিটি প্রতিটি খেলোয়াড়কে খেলতে আসার সময় পরিচয়পত্র সাথে রাখার নিয়ম জারি করে প্রতিযোগিতা পুনরায় চালু করে।

 

 

 

উল্লেখ্য, গত ক্রিকেট প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এবছরের ক্রিকেট প্রতিযোগিতার আগেই দু’টি স্থায়ী সাইডস্ক্রীন দেবার প্রতিশ্রুতি দেন মাননীয় উপাচার্য মহোদয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপাচার্য মহোদয় সাস্টনিউজকে জানান যে বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। বিস্তারিত জানার জন্য শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক চৌধুরী সউদ বিন আম্বিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাস্টনিউজকে জানান, ‘বর্তমানে মাঠের যে অবস্থা তাতে সাইডস্ক্রীন রাখা সম্ভব নয়; সেগুলো নষ্ট হয়ে যাবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মাঠে দর্শকসারী (গ্যালারী) নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে, সেটি নির্মাণ হয়ে গেলে আমাদের আর সাইডস্ক্রীন সংরক্ষণে বেগ পেতে হবে না।’ তিনি সাস্টনিউজকে আরও জানান যে আগামী এক মাসের মাঝে সেটি নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হবে, এবং আগামী বছরের জানুয়ারীর মাঝে সেটির নির্মাণ শেষ হয়ে যাবে বলে তিনি আশা করেন।

আগামী মার্চে বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ববিদ্যালয় গেমসে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট সহ অন্যান্য ক্রীড়ায় অংশগ্রহণ করবে। আগামী ফেব্রুয়ারি ৪ ও ৫ ক্রিকেট দল বাচাই প্রক্রিয়া শুরু হবে, এবং ৬ ও ৭ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল দল বাচাই প্রক্রিয়া শুরু হবে; সকল হ্যান্ডবল খেলোয়াড়কে উক্ত দুই দিন সকাল ৯ টায় হ্যান্ডবল মাঠে থাকার জন্য বলা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় হিটে যারা অংশগ্রহণ করবে তাদেরকে ৮ এবং ৯ তারিখ সকাল নয়টায় বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে থাকার জন্য বলা হয়েছে। চলতি মাসের ১৫ এবং ১৬ তারিখ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

Share via email

ক্যাটাগরি অনুযায়ী সংবাদ

এই সংবাদটি ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ইং, শনিবার ১টা ৩০মিনিটে খেলাধূলা, খেলাধূলা ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রম, পরিসংখ্যান, বিভাগীয়, রসায়ন, শিক্ষাঙ্গনে জীবনযাত্রা, শীর্ষ সংবাদ, সর্বশেষ ক্যাটাগরিতে প্রকাশিত হয়। এই সংবাদের মন্তব্যগুলি স্বয়ঙ্ক্রিয় ভাবে পেতে সাবস্ক্রাইব(RSS) করুন। আপনি নিজে মন্তব্য করতে চাইলে নিচের বক্সে লিখে প্রকাশ করুন।

মন্তব্যসমূহ

120 x 200 [Sitewide - Site Festoon]
প্রধান সম্পাদক: সৈয়দ মুক্তাদির আল সিয়াম, বার্তা সম্পাদক: আকিব হাসান মুন

প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার প্রধান সম্পাদকের। Copyright © 2013-2017, SUSTnews24.com | Hosting sponsored by KDevs.com